ঢাকা ০৭:২৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জলবদ্ধতা থেকে মুক্ত হলো ত্রিশালে ৬০০ পরিবার

ময়মনসিংহ প্রতিবেদকঃ
  • আপডেট সময় : ০৪:৪৮:৩২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪ ২০ বার পড়া হয়েছে

ত্রিশাল টেক্সটাইল এর বিপরীতে অতি বৃষ্টির ফলে প্লাবিত পানিবন্দি প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ পরিবারের সদস্যদের জান মাল রক্ষার জন্য খাল কেটে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করলেন এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান।

সম্প্রতি অতি বৃষ্টিতে ত্রিশাল উপজেলার ত্রিশাল টেক্সটাইল এর বিপরীতে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট, একাকার হয়ে গেছে খাল বিল, জলমগ্ন হয়ে পড়েছে কাঁচা-পাকা ঘরবাড়ি, ডুবে গেছে টয়লেট, টিউবওয়েলসহ বসতবাড়ির উঠান। পার্শ্ববর্তী খালে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় প্রাকৃতিক জলবদ্ধতায় বন্দি হয়ে পড়েছে সেই এলাকার প্রায় ৫থেকে ৬শত পরিবার। বিষয়টি জানতে পেরে ত্রিশাল সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড) মাহবুবুর রহমান পানিবন্ধী সেইএলাকায় গমন করেন। এসময় তিনি স্থানীয় সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলেন এবং প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে এলাকার অসহায় মানুষদের জলবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুয়েল আহমেদ এর দিকনির্দেশনায় এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ময়মনসিংহ ও ত্রিশাল থানা পুলিশের সহযোগীতায় রাস্তার পাশে অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়া জায়গা দিয়ে খাল কেটে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করেন এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান।

এসময় তিনি বলেন, আমি ত্রিশালের একজন সরকারি কর্মকর্তা হিসাবে সরকারের পক্ষ থেকে অসহায় মানুষের পাশে থাকা আমার দায়িত্ব। সেই দায়িত্ববোধ থেকে জলবদ্ধতায় মানবতার জীবনযাপন করবে এটা আমি কখনোই মেনে নিতে পারিনা। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুয়েল আহমেদ এর দিকনির্দেশনায় এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ময়মনসিংহ ও ত্রিশাল থানা পুলিশের সহযোগীতায়রাস্তার পাশে অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়া জায়গা দিয়ে খাল কেটে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রয়োজনে তাদের জন্য সরকারি অনুদানের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না, পানিবন্দী থাকবে না, অনাহারে থাকবে না। যতোদিন দায়িত্বে আছি প্রধানমন্ত্রীর সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কাজ করবো।

এদিকে এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান এর ব্যবস্থাপনায় ও মানবিকতায় পানিবন্ধী থেকে মুক্ত হতে পেরে তার মানবিকতার প্রশংসায় মেতে উঠেছেন ত্রিশাল টেক্সটাইল এর বিপরীতে অতিবৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় আটকে থাকা অসহায় মানুষেরাসহ স্থানীয় এলাকাবাসী। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পানিবন্দী হয়ে যাওয়া প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ পরিবারকে পানিবন্ধী থেকে রক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সহযোগীডা করায় তিনি ত্রিশালের সুযোগ্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ময়মনসিংহ এবং ত্রিশাল থানা পুলিশ সহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

জলবদ্ধতা থেকে মুক্ত হলো ত্রিশালে ৬০০ পরিবার

আপডেট সময় : ০৪:৪৮:৩২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

ত্রিশাল টেক্সটাইল এর বিপরীতে অতি বৃষ্টির ফলে প্লাবিত পানিবন্দি প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ পরিবারের সদস্যদের জান মাল রক্ষার জন্য খাল কেটে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করলেন এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান।

সম্প্রতি অতি বৃষ্টিতে ত্রিশাল উপজেলার ত্রিশাল টেক্সটাইল এর বিপরীতে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট, একাকার হয়ে গেছে খাল বিল, জলমগ্ন হয়ে পড়েছে কাঁচা-পাকা ঘরবাড়ি, ডুবে গেছে টয়লেট, টিউবওয়েলসহ বসতবাড়ির উঠান। পার্শ্ববর্তী খালে বৃষ্টির পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় প্রাকৃতিক জলবদ্ধতায় বন্দি হয়ে পড়েছে সেই এলাকার প্রায় ৫থেকে ৬শত পরিবার। বিষয়টি জানতে পেরে ত্রিশাল সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড) মাহবুবুর রহমান পানিবন্ধী সেইএলাকায় গমন করেন। এসময় তিনি স্থানীয় সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলেন এবং প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে এলাকার অসহায় মানুষদের জলবদ্ধতা থেকে মুক্তি দিতে ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুয়েল আহমেদ এর দিকনির্দেশনায় এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ময়মনসিংহ ও ত্রিশাল থানা পুলিশের সহযোগীতায় রাস্তার পাশে অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়া জায়গা দিয়ে খাল কেটে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করেন এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান।

এসময় তিনি বলেন, আমি ত্রিশালের একজন সরকারি কর্মকর্তা হিসাবে সরকারের পক্ষ থেকে অসহায় মানুষের পাশে থাকা আমার দায়িত্ব। সেই দায়িত্ববোধ থেকে জলবদ্ধতায় মানবতার জীবনযাপন করবে এটা আমি কখনোই মেনে নিতে পারিনা। উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুয়েল আহমেদ এর দিকনির্দেশনায় এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ময়মনসিংহ ও ত্রিশাল থানা পুলিশের সহযোগীতায়রাস্তার পাশে অবৈধভাবে দখল হয়ে যাওয়া জায়গা দিয়ে খাল কেটে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রয়োজনে তাদের জন্য সরকারি অনুদানের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী কোন মানুষ গৃহহীন থাকবে না, পানিবন্দী থাকবে না, অনাহারে থাকবে না। যতোদিন দায়িত্বে আছি প্রধানমন্ত্রীর সেই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে কাজ করবো।

এদিকে এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান এর ব্যবস্থাপনায় ও মানবিকতায় পানিবন্ধী থেকে মুক্ত হতে পেরে তার মানবিকতার প্রশংসায় মেতে উঠেছেন ত্রিশাল টেক্সটাইল এর বিপরীতে অতিবৃষ্টিতে জলাবদ্ধতায় আটকে থাকা অসহায় মানুষেরাসহ স্থানীয় এলাকাবাসী। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় পানিবন্দী হয়ে যাওয়া প্রায় ৫০০ থেকে ৬০০ পরিবারকে পানিবন্ধী থেকে রক্ষার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে সহযোগীডা করায় তিনি ত্রিশালের সুযোগ্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার,সড়ক ও জনপথ বিভাগ, ময়মনসিংহ এবং ত্রিশাল থানা পুলিশ সহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এসিল্যান্ড মাহবুবুর রহমান।