ঢাকা ০৫:০৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চুরি,ছিনতাই,চাঁদাবাজ ও মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ডিবি ওসি ফারুক

আরিফ রববানী , ময়মনসিংহ ||
  • আপডেট সময় : ১০:০৫:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩ ৫৮ বার পড়া হয়েছে

বানিয়াচংয়ে সকল শ্রেণিপেশার মানুষ যাতে করে শান্তিতে থাকতে পারে এজন্য বড় সমস্যা চুরি,ছিনতাই,চাঁদাবাজ,মাদক ও জুয়ার দাঙ্গার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে থাকবে ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। ইতিমধ্যেই নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ডিবি পুলিশ অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান চালাচ্ছে। পুলিশ সুপার মাসুম আহমেদ ভূঞার দিকনির্দেশনা মোতাবেক জেলা গোয়েন্দা শাখার নবাগত অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফারুক হোসেন এর নেতৃত্বে মাদক ও জুয়া মুক্ত সুন্দর একটি জেলা গড়ে তুলতে যোগদানের প্রথম দিন থেকেই টিম ওয়ার্ক করে পুলিশ অপরাধ নির্মুলে অভিযান পরিচালা করছে। প্রথম দিনেই অভিযানে চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার সহ ২জনকে আটক করা হয়েছে।

এছাড়াও ওসি ফারুক হোসেন অপরাধ নির্মুলে যোগদানের প্রথম দিন থেকেই অপরাধীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়াতে মহড়া চালানোর মাধ্যমে সব ধরণের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড কমাতে কঠোর নজরদারী শুরু করেছেন।তিনি গোয়েন্দা শাখায় যোগদান করেই মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন।
চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন মাদক, ছিনতাই ও সন্ত্রাসীদের দিকে। মাদক ব্যবসায়ী, জুয়াড়ী ও মাদক সেবনকারীদের এ জেলায় আর ঠাঁই নেই। এ ধরণের অপরাধীদের রুখতে নিয়মিত সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ওসি ফারুকের এ্যাকশনমুখী কর্মকান্ডে জনতার মুখে মুখে আলোচনা শুরু হয়েছে- জেলা গোয়েন্দা শাখার নবাগত বর্তমান ওসি ফারুক হোসেন গোয়েন্দা শাখায় যোগদানের পর অপরাধীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। গোয়েন্দা শাখায় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের মাঝে গতি ফিরিয়ে আনতে ওসি ফারুক তার মেধায় নিয়েছেন পদক্ষেপ। তিনি তার দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন সততা ও দক্ষতার সাথে। অনেকে বলছেন, অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে নতুন ওসি ফারুক হোসেন যোগদান করার পর থেকে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা মাদক, জুয়া নির্মূলসহ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়নে অনেক বেশী তৎপর।

এব্যাপার ওসি ফারুক হোসেন বলেন, যে কোন সময়, যে কেউ পুলিশের সহযোগিতা চাইলে আন্তরিকতার সাথে জনগণকে সহযোগিতা করা হবে । তিনি পুলিশের সকল কাজে জনগণকে আন্তরিকতার সাথে সহযোগিতা করার আহবান জানিয়ে বলেন, উপজেলা সদর এলাকাসহ সকল উপজেলায় মাদক ও জুয়াসহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়নে পুলিশ সদা তৎপর রয়েছে। পুলিশের কোন সদস্যও যদি মাদক ও জুয়ার সঙ্গে জড়িত থাকে সে ক্ষেত্রে তাকেও ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি আগামীর সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে মাদক ও জুয়ামুক্ত জেলা গঠনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

চুরি,ছিনতাই,চাঁদাবাজ ও মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ডিবি ওসি ফারুক

আপডেট সময় : ১০:০৫:০৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩

বানিয়াচংয়ে সকল শ্রেণিপেশার মানুষ যাতে করে শান্তিতে থাকতে পারে এজন্য বড় সমস্যা চুরি,ছিনতাই,চাঁদাবাজ,মাদক ও জুয়ার দাঙ্গার বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে থাকবে ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। ইতিমধ্যেই নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ডিবি পুলিশ অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান চালাচ্ছে। পুলিশ সুপার মাসুম আহমেদ ভূঞার দিকনির্দেশনা মোতাবেক জেলা গোয়েন্দা শাখার নবাগত অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ফারুক হোসেন এর নেতৃত্বে মাদক ও জুয়া মুক্ত সুন্দর একটি জেলা গড়ে তুলতে যোগদানের প্রথম দিন থেকেই টিম ওয়ার্ক করে পুলিশ অপরাধ নির্মুলে অভিযান পরিচালা করছে। প্রথম দিনেই অভিযানে চোরাই মোটর সাইকেল উদ্ধার সহ ২জনকে আটক করা হয়েছে।

এছাড়াও ওসি ফারুক হোসেন অপরাধ নির্মুলে যোগদানের প্রথম দিন থেকেই অপরাধীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়াতে মহড়া চালানোর মাধ্যমে সব ধরণের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড কমাতে কঠোর নজরদারী শুরু করেছেন।তিনি গোয়েন্দা শাখায় যোগদান করেই মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন।
চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছেন মাদক, ছিনতাই ও সন্ত্রাসীদের দিকে। মাদক ব্যবসায়ী, জুয়াড়ী ও মাদক সেবনকারীদের এ জেলায় আর ঠাঁই নেই। এ ধরণের অপরাধীদের রুখতে নিয়মিত সাঁড়াশি অভিযান পরিচালনা করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। ওসি ফারুকের এ্যাকশনমুখী কর্মকান্ডে জনতার মুখে মুখে আলোচনা শুরু হয়েছে- জেলা গোয়েন্দা শাখার নবাগত বর্তমান ওসি ফারুক হোসেন গোয়েন্দা শাখায় যোগদানের পর অপরাধীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। গোয়েন্দা শাখায় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের মাঝে গতি ফিরিয়ে আনতে ওসি ফারুক তার মেধায় নিয়েছেন পদক্ষেপ। তিনি তার দায়িত্ব পালন শুরু করেছেন সততা ও দক্ষতার সাথে। অনেকে বলছেন, অতীতের যে কোন সময়ের চেয়ে নতুন ওসি ফারুক হোসেন যোগদান করার পর থেকে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা মাদক, জুয়া নির্মূলসহ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়নে অনেক বেশী তৎপর।

এব্যাপার ওসি ফারুক হোসেন বলেন, যে কোন সময়, যে কেউ পুলিশের সহযোগিতা চাইলে আন্তরিকতার সাথে জনগণকে সহযোগিতা করা হবে । তিনি পুলিশের সকল কাজে জনগণকে আন্তরিকতার সাথে সহযোগিতা করার আহবান জানিয়ে বলেন, উপজেলা সদর এলাকাসহ সকল উপজেলায় মাদক ও জুয়াসহ আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি উন্নয়নে পুলিশ সদা তৎপর রয়েছে। পুলিশের কোন সদস্যও যদি মাদক ও জুয়ার সঙ্গে জড়িত থাকে সে ক্ষেত্রে তাকেও ছাড় দেওয়া হবে না। তিনি আগামীর সুন্দর সমাজ বিনির্মাণে মাদক ও জুয়ামুক্ত জেলা গঠনে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।