ঢাকা ০৩:৩৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেন স্থগিত হলো প্রাথমিকের বৃত্তির ফল?

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০১:৪২:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ ১০৭ বার পড়া হয়েছে

প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশের প্রায় চার ঘণ্টা পর তা স্থগিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ৮২ হাজার ৩৮৩ জনকে বৃত্তির জন্য নির্বাচিত করে ফল প্রকাশ করা হয়। কিন্তু বিকেল পাঁচটার দিকে ফল স্থগিত করা হয়েছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের ফল প্রকাশ না করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) সিনিয়র সিস্টেস অ্যানালিস্ট অনুজ কুমার রায়। তিনি বলেন, সকল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারগণকে জানানো যাচ্ছে যে, অদ্য প্রেরিত প্রাথমিক বৃত্তি ফলাফলটি আপাতত প্রকাশ না করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

কিন্তু হঠাৎ বৃত্তির ফল স্থগিত হলো কেন? এই বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, কোডিংয়ের সমস্যার কারণে এই ফল স্থগিত করা হয়েছে। যারা বৃত্তি পেয়েছে তাদের ফল পরিবর্তন হবে না।

এর আগে দুপুরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বৃত্তির ফল প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াতসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

গত ৩০ ডিসেম্বর প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। দীর্ঘ ১৩ বছর পর আলাদাভাবে বৃত্তি পরীক্ষায় বসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা। সারাদেশে বিভিন্ন কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেয় প্রায় ছয় লাখ শিক্ষার্থী।

ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসিক ৩০০ টাকা এবং সাধারণ গ্রেডে বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসিক ২২৫ টাকা করে পাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

কেন স্থগিত হলো প্রাথমিকের বৃত্তির ফল?

আপডেট সময় : ০১:৪২:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশের প্রায় চার ঘণ্টা পর তা স্থগিত করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ৮২ হাজার ৩৮৩ জনকে বৃত্তির জন্য নির্বাচিত করে ফল প্রকাশ করা হয়। কিন্তু বিকেল পাঁচটার দিকে ফল স্থগিত করা হয়েছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাদের ফল প্রকাশ না করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) সিনিয়র সিস্টেস অ্যানালিস্ট অনুজ কুমার রায়। তিনি বলেন, সকল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারগণকে জানানো যাচ্ছে যে, অদ্য প্রেরিত প্রাথমিক বৃত্তি ফলাফলটি আপাতত প্রকাশ না করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

কিন্তু হঠাৎ বৃত্তির ফল স্থগিত হলো কেন? এই বিষয়ে জানতে চাইলে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন বলেন, কোডিংয়ের সমস্যার কারণে এই ফল স্থগিত করা হয়েছে। যারা বৃত্তি পেয়েছে তাদের ফল পরিবর্তন হবে না।

এর আগে দুপুরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে বৃত্তির ফল প্রকাশ করেন প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক শাহ রেজওয়ান হায়াতসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

গত ৩০ ডিসেম্বর প্রাথমিকের বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। দীর্ঘ ১৩ বছর পর আলাদাভাবে বৃত্তি পরীক্ষায় বসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা। সারাদেশে বিভিন্ন কেন্দ্রে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশ নেয় প্রায় ছয় লাখ শিক্ষার্থী।

ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসিক ৩০০ টাকা এবং সাধারণ গ্রেডে বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসিক ২২৫ টাকা করে পাবেন।