ঢাকা ১১:১৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবার ডেনমার্কে পোড়ানো হলো পবিত্র কোরআন

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৩:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুলাই ২০২৩ ৬৪ বার পড়া হয়েছে

পবিত্র কোরআন পোড়ানো নিয়ে বিশ্বজুড়ে যখন তোলপাড় চলছে সেই সময়ে ফের একই কাজ সংগঠিত হয়েছে ডেনমার্কে। সোমবার দেশটির ইরাকি দূতাবাসের সামনে একদল বিক্ষোভকারী পবিত্র কোরআনে আগুন দেয়। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে টিআরটি।

সম্প্রতি সুইডেনে পবিত্র কোরআনে আগুন দেয় এক ইরাকি খ্রিস্টান অভিবাসী। এ নিয়ে বিশ্বজুড়ে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন দেশে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। এছাড়া সুইডিশ দূতাবাসের সামনেও জড়ো হন বিক্ষোভকারীরা। এমন অবস্থার মধ্যে এবার ডেনমার্কে সম্প্রতি কোরআনে আগুন দেওয়া হয়। আবারও দেশটিতে একই ঘটনা ঘটলো।

সোমবার ডেনমার্কে পবিত্র কোরআনে আগুন দেওয়া গোষ্ঠীটি নিজেদের ‘ডেনিশ প্যাট্রিয়টস’ বলে অভিহিত করেছে। এই ঘটনা ঘটনার সময় তারা ফেসবুকে লাইভ করে।

সুইডেন এবং ডেনমার্কে ইসলাম বিরোধী বিক্ষোভ চলাকালীন কোরান পোড়ানো বা ক্ষতি করার বিষয়ে শনিবার বাগদাদে কয়েক হাজার ইরাকি বিক্ষোভ করে। এ নিয়ে ওইসব দেশের সঙ্গে ইরাকের সম্পর্ক ছিন্নের দাবি জানিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।

সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমের সেন্ট্রাল মসজিদের সামনে ঈদুল আজহার দিনে পবিত্র কোরআনে আগুন দেয় দুই ব্যক্তি। সুইডেনের সরকারি সংবাদমাধ্যম জানায়, ইরাক থেকে আসা অভিবাসী সালমান মোমিকা ও এক ব্যক্তি এই কাজ করেছে। তারা কোরআন নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছিল। সে এই কাজ করার জন্য আদালতে আবেদন জানিয়েছিল। আদালত তাকে অনুমতি দেয়। তারপর পুলিশের উপস্থিতিতে সে এই কাজ করে। প্রথমে সে পবিত্র কোরআনের পাতা ছেঁড়ে, তারপর তা পোড়ায়। আরেকজন ব্যক্তি তাকে সাহায্য করে।

এই ঘটনার প্রতিবাদে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। সেখানকার সুইডিশ দূতাবাসে ঢুকে পড়ে বিক্ষোভকারীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

এবার ডেনমার্কে পোড়ানো হলো পবিত্র কোরআন

আপডেট সময় : ০৫:৫৩:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুলাই ২০২৩

পবিত্র কোরআন পোড়ানো নিয়ে বিশ্বজুড়ে যখন তোলপাড় চলছে সেই সময়ে ফের একই কাজ সংগঠিত হয়েছে ডেনমার্কে। সোমবার দেশটির ইরাকি দূতাবাসের সামনে একদল বিক্ষোভকারী পবিত্র কোরআনে আগুন দেয়। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে টিআরটি।

সম্প্রতি সুইডেনে পবিত্র কোরআনে আগুন দেয় এক ইরাকি খ্রিস্টান অভিবাসী। এ নিয়ে বিশ্বজুড়ে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। বিভিন্ন দেশে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। এছাড়া সুইডিশ দূতাবাসের সামনেও জড়ো হন বিক্ষোভকারীরা। এমন অবস্থার মধ্যে এবার ডেনমার্কে সম্প্রতি কোরআনে আগুন দেওয়া হয়। আবারও দেশটিতে একই ঘটনা ঘটলো।

সোমবার ডেনমার্কে পবিত্র কোরআনে আগুন দেওয়া গোষ্ঠীটি নিজেদের ‘ডেনিশ প্যাট্রিয়টস’ বলে অভিহিত করেছে। এই ঘটনা ঘটনার সময় তারা ফেসবুকে লাইভ করে।

সুইডেন এবং ডেনমার্কে ইসলাম বিরোধী বিক্ষোভ চলাকালীন কোরান পোড়ানো বা ক্ষতি করার বিষয়ে শনিবার বাগদাদে কয়েক হাজার ইরাকি বিক্ষোভ করে। এ নিয়ে ওইসব দেশের সঙ্গে ইরাকের সম্পর্ক ছিন্নের দাবি জানিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।

সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমের সেন্ট্রাল মসজিদের সামনে ঈদুল আজহার দিনে পবিত্র কোরআনে আগুন দেয় দুই ব্যক্তি। সুইডেনের সরকারি সংবাদমাধ্যম জানায়, ইরাক থেকে আসা অভিবাসী সালমান মোমিকা ও এক ব্যক্তি এই কাজ করেছে। তারা কোরআন নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছিল। সে এই কাজ করার জন্য আদালতে আবেদন জানিয়েছিল। আদালত তাকে অনুমতি দেয়। তারপর পুলিশের উপস্থিতিতে সে এই কাজ করে। প্রথমে সে পবিত্র কোরআনের পাতা ছেঁড়ে, তারপর তা পোড়ায়। আরেকজন ব্যক্তি তাকে সাহায্য করে।

এই ঘটনার প্রতিবাদে ইরাকের রাজধানী বাগদাদে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়। সেখানকার সুইডিশ দূতাবাসে ঢুকে পড়ে বিক্ষোভকারীরা।