ঢাকা ০৪:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদে পোশাক শ্রমিকদের ছুটির নির্দেশনা দিলো বিজিএমইএ

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৮:১২:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩ ৮০ বার পড়া হয়েছে

ঈদের ছুটিতে সড়ক, নৌপথ ও রেলপথে অতিরিক্ত মানুষের চাপ এড়াতে ঈদের দুই-তিন দিন আগেই শ্রমিকদের ছুটি দিতে সদস্য কারখানার প্রতি নির্দেশনা দিয়েছে তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

সোমবার (২৭ মার্চ) বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই অনুরোধ জানায় সংগঠনটি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঈদের ছুটিতে সড়ক, রেল ও লঞ্চযাত্রায় একই দিনে অতিরিক্ত শ্রমিকের চাপ কমাতে সরকারের বিভিন্ন দপ্তর থেকে ধাপে ধাপে পোশাকশ্রমিকদের ছুটি দেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

সুযোগ থাকলে ঈদের ছুটির দুই-তিন দিন আগে ছুটি দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সরকারি ও সাপ্তাহিক ছুটির দিনে শ্রমিকদের সাধারণ ডিউটি করিয়ে ঈদের বাড়তি ছুটি সমন্বয় করতে পারবে বলেও জানায় সংগঠনটি।

শ্রমিকদের ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে মালবোঝাই করা ট্রাকে যাতায়াত না করা, অতিরিক্ত যাত্রী না হওয়া, অপরিচিত লোকের কাছ থেকে কিছু না খাওয়া ইত্যাদি বিষয়ে সচেতন করতে কারখানা কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ করেছে বিজিএমইএ।

এ ছাড়া শেষ কর্মদিবসে শ্রমিকদের নিরাপদে গ্রামের উদ্দেশে যাত্রা করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনে কারখানা কর্তৃপক্ষ ৮-১০ জনের দল গঠন করে স্থানীয় ট্রাফিক পুলিশের সহযোগিতা নিতে পারে।

বিজিএমইএর বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী, তৃতীয় কোনো পক্ষ শ্রমিক অসন্তোষ হওয়ার মতো ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করতে পারে। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, কলকারখানা অধিদপ্তর অথবা বিজিএমইএর সঙ্গে আলোচনা করতে সদস্য প্রতিষ্ঠানকে অনুরোধ জানানো হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

ঈদে পোশাক শ্রমিকদের ছুটির নির্দেশনা দিলো বিজিএমইএ

আপডেট সময় : ০৮:১২:৩১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০২৩

ঈদের ছুটিতে সড়ক, নৌপথ ও রেলপথে অতিরিক্ত মানুষের চাপ এড়াতে ঈদের দুই-তিন দিন আগেই শ্রমিকদের ছুটি দিতে সদস্য কারখানার প্রতি নির্দেশনা দিয়েছে তৈরি পোশাকশিল্পের মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

সোমবার (২৭ মার্চ) বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই অনুরোধ জানায় সংগঠনটি।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঈদের ছুটিতে সড়ক, রেল ও লঞ্চযাত্রায় একই দিনে অতিরিক্ত শ্রমিকের চাপ কমাতে সরকারের বিভিন্ন দপ্তর থেকে ধাপে ধাপে পোশাকশ্রমিকদের ছুটি দেওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

সুযোগ থাকলে ঈদের ছুটির দুই-তিন দিন আগে ছুটি দেয়ার পাশাপাশি বিভিন্ন সরকারি ও সাপ্তাহিক ছুটির দিনে শ্রমিকদের সাধারণ ডিউটি করিয়ে ঈদের বাড়তি ছুটি সমন্বয় করতে পারবে বলেও জানায় সংগঠনটি।

শ্রমিকদের ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে মালবোঝাই করা ট্রাকে যাতায়াত না করা, অতিরিক্ত যাত্রী না হওয়া, অপরিচিত লোকের কাছ থেকে কিছু না খাওয়া ইত্যাদি বিষয়ে সচেতন করতে কারখানা কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ করেছে বিজিএমইএ।

এ ছাড়া শেষ কর্মদিবসে শ্রমিকদের নিরাপদে গ্রামের উদ্দেশে যাত্রা করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনে কারখানা কর্তৃপক্ষ ৮-১০ জনের দল গঠন করে স্থানীয় ট্রাফিক পুলিশের সহযোগিতা নিতে পারে।

বিজিএমইএর বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী, তৃতীয় কোনো পক্ষ শ্রমিক অসন্তোষ হওয়ার মতো ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করতে পারে। সেই দৃষ্টিকোণ থেকে স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, কলকারখানা অধিদপ্তর অথবা বিজিএমইএর সঙ্গে আলোচনা করতে সদস্য প্রতিষ্ঠানকে অনুরোধ জানানো হয়।