ঢাকা ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আবারও ফাঁসছেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৯:৩৬:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩ ৬০ বার পড়া হয়েছে

মামলার তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য আবারও ফাঁসছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সাবেক এ মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে গোপন নথি ইস্যুতে হওয়া মামলার তদন্ত চলছে। ওই তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য তার ফ্লোরিডা এস্টেটের নিরাপত্তা ফুটেজ মুছে ফেলার জন্য একজন কর্মচারীকে চাপ দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

এ নতুন অভিযোগগুলো ট্রাম্পের মার-এ-লাগোতে সরকারী নথি পরিচালনার অভিযোগের সঙ্গে সম্পর্কিত। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এখন একটি প্রতিরক্ষা তথ্য ইচ্ছাকৃতভাবে ধরে রাখার এবং দু’টি তদন্তে বাধা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

প্রসিকিউটররা বলছেন, ফুটেজে দেখা যাচ্ছে অবৈধভাবে রাখা ফাইলগুলো সরানো হচ্ছে।

এছাড়া মার-এ-লাগোর স্টাফ সদস্য কার্লোস ডি অলিভেরাকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে। তিনি ফুটেজ মুছে ফেলার জন্য কি করা যেতে পারে জিজ্ঞাসা করেছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ট্রাম্প তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ওয়াল্ট নাউতার সঙ্গে জানিয়েছেন যে তিনি কোনো দোষ করেননি। তবে এরপরে তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত ‍দু’টি অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন তিনি।

নতুন অভিযোগে বিচার বিভাগের তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য ওয়াল্ট নাউতা এবং মার-এ-লাগোর সম্পত্তি ব্যবস্থাপক ডি অলিভিয়েরার মধ্যে কথিত প্রচেষ্টার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

আদালতের নথি অনুযায়ী, ওয়াল্ট নাউতা ও ডি অলিভিয়েরার নিরাপত্তা ক্যামেরা থেকে ফুটেজ মুছে ফেলার ষড়যন্ত্র করেছিলেন। ওই সময় বিচার বিভাগ একটি বিশেষ আদেশ জারি করে বেসমেন্টের নজরদারি ফুটেজের জন্য তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল। ওয়াল্ট নাউতা ও ডি অলিভিয়েরারকে জিজ্ঞাসাবাদের আগেই তারা ওই ফুটেজ মুছে ফেলেন।

সূত্র : বিবিসি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

আবারও ফাঁসছেন ট্রাম্প

আপডেট সময় : ০৯:৩৬:২২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুলাই ২০২৩

মামলার তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য আবারও ফাঁসছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সাবেক এ মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে গোপন নথি ইস্যুতে হওয়া মামলার তদন্ত চলছে। ওই তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য তার ফ্লোরিডা এস্টেটের নিরাপত্তা ফুটেজ মুছে ফেলার জন্য একজন কর্মচারীকে চাপ দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।

এ নতুন অভিযোগগুলো ট্রাম্পের মার-এ-লাগোতে সরকারী নথি পরিচালনার অভিযোগের সঙ্গে সম্পর্কিত। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এখন একটি প্রতিরক্ষা তথ্য ইচ্ছাকৃতভাবে ধরে রাখার এবং দু’টি তদন্তে বাধা দেওয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

প্রসিকিউটররা বলছেন, ফুটেজে দেখা যাচ্ছে অবৈধভাবে রাখা ফাইলগুলো সরানো হচ্ছে।

এছাড়া মার-এ-লাগোর স্টাফ সদস্য কার্লোস ডি অলিভেরাকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে। তিনি ফুটেজ মুছে ফেলার জন্য কি করা যেতে পারে জিজ্ঞাসা করেছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

ট্রাম্প তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ওয়াল্ট নাউতার সঙ্গে জানিয়েছেন যে তিনি কোনো দোষ করেননি। তবে এরপরে তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত ‍দু’টি অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছেন তিনি।

নতুন অভিযোগে বিচার বিভাগের তদন্তে বাধা দেওয়ার জন্য ওয়াল্ট নাউতা এবং মার-এ-লাগোর সম্পত্তি ব্যবস্থাপক ডি অলিভিয়েরার মধ্যে কথিত প্রচেষ্টার বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে।

আদালতের নথি অনুযায়ী, ওয়াল্ট নাউতা ও ডি অলিভিয়েরার নিরাপত্তা ক্যামেরা থেকে ফুটেজ মুছে ফেলার ষড়যন্ত্র করেছিলেন। ওই সময় বিচার বিভাগ একটি বিশেষ আদেশ জারি করে বেসমেন্টের নজরদারি ফুটেজের জন্য তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল। ওয়াল্ট নাউতা ও ডি অলিভিয়েরারকে জিজ্ঞাসাবাদের আগেই তারা ওই ফুটেজ মুছে ফেলেন।

সূত্র : বিবিসি