ঢাকা ০৪:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগস্টেই আবারো দেখা যাবে ‘সুপারমুন’

দেশের আওয়াজ ডেস্কঃ
  • আপডেট সময় : ০৮:১৩:১৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৪ অগাস্ট ২০২৩ ৮৩ বার পড়া হয়েছে

চাঁদ তার পূর্ণ রূপ নিয়ে মাসে একবার হাজির হয় পৃথিবীর আকাশে। গোল থালার মতো বড় চাঁদই পূর্ণিমা তিথির মূল আকর্ষণ। কিন্তু একই মাসে পরপর দুইবার পূর্ণিমা? সচরাচর তেমন ঘটনা দেখা যায় না। আগস্টে সেই বিরল মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী থাকতে চলেছে পৃথিবী। আগস্টের এই জোড়া পূর্ণিমার চাঁদ কিন্তু আর পাঁচটা পূর্ণিমার চেয়ে আলাদা। এতে চাঁদ হয়ে উঠছে ‘সুপার’। এরই মধ্যে এই বিরল জোড়া পূর্ণিমার একটি পেরিয়ে এসেছে পৃথিবী।
গত ১ আগস্ট, মঙ্গলবার পৃথিবীর আকাশে দেখা গিয়েছে পূর্ণিমার ‘সুপারমুন’। হিসাব অনুযায়ী, আবার আগামী ৩০ আগস্ট একই রকম ‘সুপারমুন’ দেখা যাবে। যদিও ইংরাজি মাসের হিসাব অনুযায়ী দু’টি পূর্ণিমা এক মাসে পড়লেও বাংলার তিথি, নক্ষত্রের সাথে তার কোনো সম্পর্ক নেই। সাধারণ পূর্ণিমায় যে গোল থালার মতো বড় চাঁদ দেখা যায়, সুপারমুনে চাঁদের আকার হয় তার চেয়েও বড়। ‘সুপারমুন’ স্বাভাবিক চাঁদের তুলনায় আকারে প্রায় ১৪ শতাংশ বড়। এই চাঁদের ঔজ্জ্বল্য স্বাভাবিকের চেয়ে অন্তত ৩০ শতাংশ বেশি। পৃথিবীর অনেকটা কাছে চলে আসার কারণেই চাঁদের আকার এবং ঔজ্জ্বল্য এতটা বেড়ে যায়।

পৃথিবী থেকে সাধারণভাবে চাঁদের দূরত্ব ৩,৮৪,৪০০ কিলোমিটার। সুপারমুনের ক্ষেত্রে এই দূরত্ব কমে হয় ৩,৫৭,০০০ কিলোমিটারের কাছাকাছি। মঙ্গলবার পৃথিবী এবং চাঁদের দূরত্ব ছিল ৩,৫৭,৫৩০ কিলোমিটার। আগামী ৩০ আগস্ট এর চেয়েও বড় দেখাবে চাঁদকে। সে দিন পৃথিবীর সাথে তার দূরত্ব কমে হবে ৩,৫৭,৩৪৪ কিলোমিটার। চলতি বছরে মোট চারবার এমন বড় এবং উজ্জ্বল ‘সুপারমুন’ দেখা যাবে। যার প্রথমটি ছিল মঙ্গলবার।

ইংরাজি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এক মাসে দু’বার পূর্ণিমা খুব একটা বিরল নয়। ২৯ দিন পরপর পূর্ণিমা আসে। ইংরেজি মাসগুলো ৩০ এবং ৩১ দিনের। ফলে দুই থেকে আড়াই বছর অন্তর প্রায়ই মাসে দু’বার পূর্ণিমা পড়তে দেখা যায়। কিন্তু ৩০ আগস্টের পূর্ণিমা এবং ‘সুপারমুন’কে বিশেষ বলে মনে করা হচ্ছে। ওই দিনের চাঁদকে বলা হবে ‘ব্লু মুন’। এক মাসে দু’বার পূর্ণিমা নতুন না হলেও এক মাসে দু’বার পূর্ণিমায় সুপারমুন দেখতে পাওয়া বিরল। সচরাচর এমন ঘটনা দেখা যায় না। ২০০৯ সালে শেষবার এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। আবার এমন এক মাসে দুই সুপারমুন দেখা যাবে নয় বছর পর, ২০৩২ সালে। এই চাঁদের নাম ‘ব্লুমুন’। সূত্র: আনন্দবাজার

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

আগস্টেই আবারো দেখা যাবে ‘সুপারমুন’

আপডেট সময় : ০৮:১৩:১৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৪ অগাস্ট ২০২৩

চাঁদ তার পূর্ণ রূপ নিয়ে মাসে একবার হাজির হয় পৃথিবীর আকাশে। গোল থালার মতো বড় চাঁদই পূর্ণিমা তিথির মূল আকর্ষণ। কিন্তু একই মাসে পরপর দুইবার পূর্ণিমা? সচরাচর তেমন ঘটনা দেখা যায় না। আগস্টে সেই বিরল মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী থাকতে চলেছে পৃথিবী। আগস্টের এই জোড়া পূর্ণিমার চাঁদ কিন্তু আর পাঁচটা পূর্ণিমার চেয়ে আলাদা। এতে চাঁদ হয়ে উঠছে ‘সুপার’। এরই মধ্যে এই বিরল জোড়া পূর্ণিমার একটি পেরিয়ে এসেছে পৃথিবী।
গত ১ আগস্ট, মঙ্গলবার পৃথিবীর আকাশে দেখা গিয়েছে পূর্ণিমার ‘সুপারমুন’। হিসাব অনুযায়ী, আবার আগামী ৩০ আগস্ট একই রকম ‘সুপারমুন’ দেখা যাবে। যদিও ইংরাজি মাসের হিসাব অনুযায়ী দু’টি পূর্ণিমা এক মাসে পড়লেও বাংলার তিথি, নক্ষত্রের সাথে তার কোনো সম্পর্ক নেই। সাধারণ পূর্ণিমায় যে গোল থালার মতো বড় চাঁদ দেখা যায়, সুপারমুনে চাঁদের আকার হয় তার চেয়েও বড়। ‘সুপারমুন’ স্বাভাবিক চাঁদের তুলনায় আকারে প্রায় ১৪ শতাংশ বড়। এই চাঁদের ঔজ্জ্বল্য স্বাভাবিকের চেয়ে অন্তত ৩০ শতাংশ বেশি। পৃথিবীর অনেকটা কাছে চলে আসার কারণেই চাঁদের আকার এবং ঔজ্জ্বল্য এতটা বেড়ে যায়।

পৃথিবী থেকে সাধারণভাবে চাঁদের দূরত্ব ৩,৮৪,৪০০ কিলোমিটার। সুপারমুনের ক্ষেত্রে এই দূরত্ব কমে হয় ৩,৫৭,০০০ কিলোমিটারের কাছাকাছি। মঙ্গলবার পৃথিবী এবং চাঁদের দূরত্ব ছিল ৩,৫৭,৫৩০ কিলোমিটার। আগামী ৩০ আগস্ট এর চেয়েও বড় দেখাবে চাঁদকে। সে দিন পৃথিবীর সাথে তার দূরত্ব কমে হবে ৩,৫৭,৩৪৪ কিলোমিটার। চলতি বছরে মোট চারবার এমন বড় এবং উজ্জ্বল ‘সুপারমুন’ দেখা যাবে। যার প্রথমটি ছিল মঙ্গলবার।

ইংরাজি ক্যালেন্ডার অনুযায়ী এক মাসে দু’বার পূর্ণিমা খুব একটা বিরল নয়। ২৯ দিন পরপর পূর্ণিমা আসে। ইংরেজি মাসগুলো ৩০ এবং ৩১ দিনের। ফলে দুই থেকে আড়াই বছর অন্তর প্রায়ই মাসে দু’বার পূর্ণিমা পড়তে দেখা যায়। কিন্তু ৩০ আগস্টের পূর্ণিমা এবং ‘সুপারমুন’কে বিশেষ বলে মনে করা হচ্ছে। ওই দিনের চাঁদকে বলা হবে ‘ব্লু মুন’। এক মাসে দু’বার পূর্ণিমা নতুন না হলেও এক মাসে দু’বার পূর্ণিমায় সুপারমুন দেখতে পাওয়া বিরল। সচরাচর এমন ঘটনা দেখা যায় না। ২০০৯ সালে শেষবার এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল। আবার এমন এক মাসে দুই সুপারমুন দেখা যাবে নয় বছর পর, ২০৩২ সালে। এই চাঁদের নাম ‘ব্লুমুন’। সূত্র: আনন্দবাজার